ধর্মপাশায় স্বেচ্ছাশ্রমে সড়ক সংস্কারের কাজ করলেন যানবাহনের চালকেরা।

সোহান আহম্মেদঃ ধর্মপাশা(সুনামগঞ্জ)
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  01:52 PM, 20 November 2020

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার সদর ইউনিয়নের উকিলপাড়া-নোয়াবন্দ সড়কটির বিভিন্ন স্থানে থাকা গর্তে মাটি ভরাট করে স্বেচ্ছাশ্রমে ওই সড়কটির সংস্কার কাজ করেছেন এলাকার বিভিন্ন যানবাহনের চালকেরা।
এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে,উপজেলার সদর ইউনিয়নের উকিলপাড়া-নোয়াবন্দ সড়কটির দূরত্ব প্রায় দুই কিলোটিমটার। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডির) অধীনে ২০০৪ সালে এই সড়কটি পাকা করণ কাজ করা হয়। এর পর থেকে সড়কটির আর কোনোরকম সংস্কার করা হয়নি। প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে সড়কটির বিভিন্ন স্থানে ছোট বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়। এই সড়কটির ওপর দিয়ে রিকশা,অটোরিকশা, ইজিবাইক,ঠেলাগাড়ি,মোটরসাইকেলসহ গড়ে শতাধিক যানবাহন চলাচল করে। সড়কটির এই দূরাবস্থায় এখানকার উকিলপাড়া, নোয়াবন্দ দক্ষিণপাড়া, নোয়াবন্দ, সোনাজানা ,মহিষের বাতান ,লংকাপাতারিয়া ও দূর্বাকান্দা গ্রামসহ আশপাশের প্রায় ১৫ হাজার মানুষজনকে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্চিল। সাময়িকভাবে এই সড়কের ছোট বড় গর্ত ভরাটের জন্য উদ্যোগ নেন স্থানীয় যানবাহনের চালকেরা। তাঁরা ওই সড়কের বিভিন্ন স্থানের গর্তে মাটি ফেলে এটির ওপর দিয়ে সাময়িক ভাবে যান চলাচলের উপযোগী করেছেন।

সোনাজানা গ্রামের বাসিন্দা অটোরিকশা চালক মো. রানা মিয়া (৩০)বলেন, কুনু কাম না করনে ৭-৮ বছর ধইরা এই সড়কটাত শত শত গাতা ( গর্ত) সৃষ্টি অইছে । গাড়ি লইয়া সড়কের ওফুর দিয়া গেলেই কোনো না কুনু ক্ষতি অইবই।সরহার থাইক্যা কাম না করনে আমরা নিজেরাই মিইল্যা মিইশ্যা সড়কের গাতায়( গর্তে) মাটি ফাইল্লা সাময়িকভাবে গাড়ি চলনের উপযুক্ত করছি।

ধরমপাশা সদর ইউনিয়ন পরিষদ ( ইউপি) চেয়ারম্যান সেলিম আহম্মেদ বলেন, ওই সড়কটির সংস্কার ও মেরামত কাজের জন্য উপজেলা প্রকৌশলীর সঙ্গে বেশ কয়েকবার কথা বলেছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে তিনি আমাকে জানিয়েছেন।

এলজিইডির ধর্মপাশা উপজেলা প্রকৌশলী আরিফ উল্লাহ খান বলেন, এই সংস্কার ও মেরামতের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো.মুনতাসির হাসান বলেন, স্থানীয় বিভিন্ন যানবাহনের চালকেরা স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে সড়ক সংস্কারের যে কাজটি করেছেন তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।

আপনার মতামত লিখুন :