ঐতিহাসিক জয়ে হোয়াইট হাউজে বাইডেন

ডেস্ক রিপোর্ট
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  11:26 PM, 08 November 2020

প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বিতা আর বহু তিক্ততার পর ঐতিহাসিক জয়ের মধ্য দিয়ে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হারিয়ে ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। তার রানিং মেট কমলা হ্যারিস প্রথম নারী, প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ ও প্রথম এশীয় বংশোদ্ভূত হিসেবে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন।

এরই মধ্যে রেকর্ডসংখ্যক ভোট অর্জনের মাধ্যমে ইতিহাস গড়েছেন জো বাইডেন। সব মিলিয়ে এবার ৬৬.৯ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে, যা ১২০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। রোনাল্ড রিগানকে সরিয়ে দেশটির ইতিহাসে সবচেয়ে বয়স্ক প্রেসিডেন্ট হিসেবেও অভিষেক হতে যাচ্ছে তার। এছাড়া এই নির্বাচনের মধ্য দিয়েই প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

বহু আলোচনা ও বিতর্কের জন্ম দেওয়া রিপাবলিকান দলের নেতা ডোনাল্ড ট্রাম্পের চার বছরের শাসনের অবসান ঘটতে যাচ্ছে এর মধ্য দিয়েই। প্রায় তিন দশকের মধ্যে তিনিই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রে দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে ব্যর্থ হলেন। তার আগে ১৯৯২ সালে জর্জ এইচ ডব্লিউ বুশ এই পরীক্ষায় হেরে গিয়েছিলেন।

নির্বাচিত হওয়ার পর জো বাইডেন বলেছেন, এখন আমেরিকাকে ‘ঐক্যবদ্ধ’ করার সময়, ‘সারিয়ে তোলার’ সময়। ভোটের প্রচারের দিন শেষ, এখন আমাদের সকল বৈরিতা আর কর্কশ রাজনৈতিক বাগাড়ম্বর পেছনে ফেলে একসঙ্গে একটি জাতি হিসেবে এগিয়ে যেতে হবে।”

নজিরবিহীন বাধার মধ্যেও এ নির্বাচনে রেকর্ড ভোট পড়ার বিষয়টি তুলে ধরে বাইডেন বলেছেন, আমেরিকার হৃদয় গভীরে যে গণতন্ত্রের চেতনাই স্পন্দিত হয়, এটা তার প্রমাণ।

সাধারণত ভোটের রাতেই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট কে হচ্ছেন, তার ফয়সালা হয়ে যায়। তকে এবার করোনা ভাইরাস মহামারির মধ্যে জয়-পরাজয় নির্ধারিত হতে লেগেছে দীর্ঘ সময়। মহামারির মধ্যে এ নির্বাচনে রেকর্ড সংখ্যক আগাম ভোট পড়ায় কয়েকটি রাজ্যে গণনা শেষ হতে কয়েক দিন সময় লেগে যায়। আগাম ভোটের ওপর ভর করে নির্বাচনী ফল বাইডেনের দিকে ঝুঁকতে থাকায় ভোট গণনা বন্ধের দাবি জানান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

কোনো প্রমাণ ছাড়াই তিনি ভোট কারচুপির অভিযোগ তোলেন। পেনসিলভেইনিয়ায় ভোট গণনা বন্ধের দাবি নিয়ে আদালতেও গিয়েছিলেন তার অনুসারীরা। এ নিয়ে দুনিয়াজুড়ে আলোচনার মধ্যে শনিবার পেনসিলভেনিয়ায় ট্রাম্পের চেয়ে ভোটের ব্যবধান বাড়িয়ে বাইডেন জয়ী হওয়ায় রাজ্যের ২০টি ইলেকটোরাল ভোট চলে আসে তার পক্ষে।

আপনার মতামত লিখুন :