ধুনটে ঋণ গ্রহীতা স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা।

আসমা নুসরাত লাবণীঃ ধুনট(বগুড়া)
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  05:20 PM, 11 October 2020

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ঋণের কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে বলায় ক্ষুব্ধ হয়ে শেফালী খাতুন (৫০) নামে এক গৃহবধুকে দা দিয়ে জবাই করে হত্যা করেছে তার স্বামী এশারত আলী। শনিবার রাত ২টার দিকে উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের পাঁচথুপি সরোয়া গ্রামে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।

রবিবার সকালের দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শেফালী খাতুনের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছেন। এছাড়া অভিযান চালিয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় নিহত গৃহবধুর স্বামী এশারত আলীকে (৫৮) শেরপুর উপজেলার চান্দাইকোনা বাজার এলাকা থেকে আটক করেছেন পুলিশ। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে এশারত আলী তার স্ত্রী শেফালী খাতুনকে জবাই করে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার পাঁচথুপি সরোয়া গ্রামের হারুন-অর রশিদের ছেলে এশারত আলী একজন বাঁশ শিল্পের কারিগর। দুই ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে তাদের অভাবের সংসার। বাঁশ দিয়ে তৈরী বিভিন্ন সামগ্রী বাজারে বিক্রি করে চলে তাদের সংসার। করোনা দূর্যোগের কারণে বাঁশের সামগ্রীর বাজারে চাহিদা না থাকায় তাদের সংসারে অভাব দেখা দিয়েছে।

এ অবস্থায় দুই মাস আগে স্থানীয় কল্যানী বাজার এলাকার একটি বেসরকারী সংস্থা (এনজিও) থেকে স্ত্রীর নামে ১০হাজার টাকা ঋণ গ্রহন করে এশারত আলী। ওই ঋণের কিস্তি হিসেবে সপ্তাহে ৩০০টাকা করে পরিশোধ করতে হয়। আগামী সোমবার সকালে ৩০০টাকা কিস্তি দিতে হবে। কিন্তু কিস্তির টাকা পরিশোধের সামর্থ নেই তাদের। এ বিষয়টি নিয়ে শনিবার রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে এশারত আলী ক্ষুব্ধ হয়ে তার স্ত্রী শেফালী খাতুনকে বাঁশ কাটা দা দিয়ে জবাই করে হত্যা করেন।

এসময় ঘরের ভেতর গোঙ্গানীর শব্দ পেয়ে এশারত আলীর ছেলে সেলিম রেজা বিষয়টি বুঝতে পেরে তার বাবাকে আটকের চেষ্টা করেন। কিন্তু তখন সেলিমকেও দা দিয়ে কোপানোর ভয় দেখিয়ে ঘর থেকে পালিয়ে যায় এশারত আলী। খবর পেয়ে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় এশারত আলীকে আটক করেন।

নিহতের ছেলে সেলিম রেজা বলেন, ঋণের কিস্তির টাকা পরিশোধের বিষয়টি নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যয়ে বাবা বটি দিয়ে জবাই করে মাকে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজিউর রহমান বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এশারত আলী তার স্ত্রীকে জবাই করে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।

আপনার মতামত লিখুন :